Archive for August, 2016

রেড ভেলভেট কেক রেসিপি

August 31, 2016 3:59 pm
রেড ভেলভেট কেক রেসিপি

রেড ভেলভেট কেক রেসিপি - red velvet cake bangla recipe

রেড ভেলভেট কেক রেসিপি

ডেজার্ট হিসেবে অনেকেরই প্রথম পছন্দ রেড ভেলভেট কেক। অনেকে হয়ত এই একটি আইটেম টেস্ট করতে ছুটেন রেস্টুরেন্টে। তবে একটু ইচ্ছা আর ধৈর্য্য থাকলে আপনি নিজেই বাসায় এই দারুণ সুন্দর এবং লোভনীয় রেড ভেলভেট কেক তৈরি করতে পারবেন। তবে চলুন দেখে নিই এর পুরো প্রণালী।

রেসিপি ও ছবিঃ বুশরা ফাহমি

উপকরণঃ

    • ময়দা ২কাপ
    • ১ চা চামচ বেকিং সোডা
    • ১ চা চামচ বেকিং পাউডার
    • হাফ চামচ লবণ
    • ২ টেবিল চামচ কোকো পাউডার
    • ২ কাপ চিনি
    • ১ কাপ ভেজিটেবল তেল
    • ২ টা ডিম
    • ১ কাপ দুধ
    • ২ চা চামচ ভেনিলা এসেন্স
    • লাল রং ১ টেবিল চামচ (বেশি গাড় রং চাইলে ইচ্ছা মত দিয়ে নিবেন)
    • ১ চা চামচ সাদা ভেনিগার
    • ১/২ কাপ গরম কফি ( দুধ ছাড়া )

রেড ভেলভেট কেক রেসিপি - cake recipe in bangla

বাটার ক্রিম রেসেপি:

    • ৪০০ গ্রাম বাটার
    • ৯০০ গ্রাম আইসিং সুগার
    • ৫-৬ চা চামচ দুধ
    • ১/২ চা চামচ ভেনিলা এসেন্স

১) প্রথমে সব শুক্না উপাদান চেলে নিতে হবে।

২) একটি বোলে তেল আর চিনি মিশিয়ে, তাতে ডিম,দুধ,ভেনিলা,ফুড কালার দিয়ে কিছুক্ষণ ইলেকট্রিকাল বীটার দিয়ে বীট করে নিতে হবে।

৩) তারপর ভিনেগার এবং কফি দিয়ে আবার বীট করতে হবে যতক্ষণ না চিনি সম্পূর্ণভাবে গলে না যায়।

৪) চিনি গলে পুরোপুরি ভাবে মিশে গেলে ময়দার মিশ্রণ টা অল্প অল্প করে মিক্স করে নিতে হবে।

৫) ওভেনটি কে ১৫মিনিট ২০০ ডিগ্রীতে প্রী-হীট করে নিতে হবে।তারপর ২টি মল্ড এ ২ভাগে মিশ্রণটিকে ভাগ করে ১৮০ ডিগ্রীতে ২৫-৩০মিনিট বেক করতে হবে।

একটা কাঠি দিয়ে সময় মত হয়েছে কিনা তা চেক করতে হবে। হয়ে গেলে কক্ষ তাপমাত্রায় ঠান্ডা করে নিতে হবে।

১) বাটার ফুল স্পীডএ বীটার দিয়ে বীট করে নিতে হবে।
২)বাটার সাদা ফম ফম না হওয়া পর‍্যন্ত বীট করে যেতে হবে।
৩) ফম ফম হয়ে আসলে আস্তে আস্তে আইসিং সুগারটা মিক্স করতে হবে।
৪) ভেনিলা এসেন্স আর অল্প অল্প করে দুধ দিয়ে বীট করে নিতে হবে।
৫) আইসিং সুগার মিশে গেলে বুঝে নিবেন ক্রিম রেডি।

কেক ঠান্ডা হয়ে গেলে ইচ্ছামত ডেকোরেশন করে ফ্রিজ এ রেখে দিন যাতে ক্রিমটি কেক এর মদ্ধে সেট হওয়ার জন্ন্য।

রেড ভেলভেট কেক রেসিপি - red velvet cake

তালের রস সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

August 26, 2016 2:49 am
তালের রস সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

তালের রস সংরক্ষণ করবেন যেভাবে - taler rosh

তালের রস সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

এখন তালের মৌসুম প্রায় শেষের দিকে ! তারপর এখন ও সময় আছে । তালের রস সংরক্ষণ করুন এবং সারা বছর যখন ইচ্ছা তালের বিভিন্ন পদের নাশ্তা ! আসুন দেখে নিই কিভাবে তালের রস সংরক্ষণ করবেন।

ছবি ও লিখাঃ আনার’স কিচেন ও রেসিপি

যা যা লাগবেঃ

    • পাকা তাল ( বড় সাইজের তাল গুলো এবং বেশি রস পাওয়া যায়।)
    • চুন হাফ চামচ + এক কাপ পানি
    • একটি সুতির কাপড় ( বড়)
    • প্লাস্টিকের বোতল

যেভাবে করবেন:-

তাল গুলো ধুয়ে বড় তালায় নিন এবং তালের শাষ ছাড়িয়ে নিন।

এখন একটা একটা তাল নিয়ে হাতে সাহায্যে কচলিয়ে কচলিয়ে রস বের করে নিন।এভাবে সব থেকে রস বের করে নিন।

ঘণ রস গুলো আলাদা করে বাটিতে নিয়ে নিন। এখন আটিঁগুলোতে এক কাপ মত পানি দিয়ে আবার কচলিয়ে রস বের করে নিন। বেশি পানি দিবেন না ।

এখন সব রস একসাথে বাটিতে নিয়ে ,পানি ও চুন মিক্স করে রসে মিশান এতে তালের তিতা বের হয়ে যাবে ।

এখন সুতির কাপড়টি একটি বড় গমলায় বিছিয়ে নিন এবং তার উপর তালের রস ঢেলে নিন।

এবার কাপড়টি ভাল করে মুডে নিয়ে কোন উচুতে আটকিয়ে রাখুন যেন এক্সট্রা পানি ও তিতা ঝরে যায় । এভাবে রেখে দিন প্রায় ৭-৬ ঘন্টা । এই প্রসেসটা ছানা থেকে পানি ঝরানোর প্রসেসের মত।

৭-৬ ঘন্টা পর দেখবেন রস গুলো দেখতে থকথকে হবে। এবার প্লাস্টিক ব্যাগ বা বোতলে ভরে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। এভাবে সারা বছর রেখে দিতে পারেন।

যখন তালের মৌসুম থাকবে না ,তখন বের করে মনের মত পিঠা বানিয়ে নিতে পারেন। আশা করি এই টিপসটি সবার উপকারে আসবে।

    • আরো সুন্দর, সুস্বাদু রেসিপি ও টিপস পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

চিতল মাছের কোফতা কারি

2:33 am
চিতল মাছের কোফতা কারি

চিতল মাছের কোফতা কারি - chitol macher kofta

চিতল মাছের কোফতা কারি

রেসিপি ও ছবিঃ সুমি’স কিচেন

উপকরণ:

    • চিতল মাছ আধা কেজ়ি (মাছের টুকরা লবণ মেশানো সিরকা দিয়ে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে কাঁটাচামচ দিয়ে কাঁটা ছাড়িয়ে নিন)।
    • কর্নফ্লাওয়ার ১ টেবিল-চা্মচ অথবা আলু ভর্তা ১ কাপ।
    • কাঁচামরিচ-বাটা ২টি।
    • গরম মসলা ও ধনেগুঁড়া আধা চা-চামচ করে।
    • জ়িরাবাটা ১ চা-চামচ।
    • আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ করে।

মাছের কিমার সঙ্গে উপরের সব মসলা ও আধা চা-চামচ লবণ নিয়ে হাত দিয়ে ভালো করে কচলে মিশিয়ে নিন। হাতের এক মুঠি পরিমাণ কিমা নিয়ে বল বানিয়ে নিন।

হাঁড়িতে এক লিটার পানি দিন। পানি ফুটলে মাছের বলগুলো দিন।

কোফতার রং পরিবর্তন (চার মিনিট লাগে সাধারণত) হলে চুলা বন্ধ করে পানি থেকে তুলে রাখুন।

ঝোল বা গ্রেইভি করতে:

    • তেল আধা কাপ।
    • পেঁয়াজবাটা ১/৪ কাপ।
    • হলুদ ও মরিচ বাটা ১ চা-চামচ করে।
    • গরম মসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ।
    • ধনেবাটা ১ চা-চামচ।
    • কাঁচামরিচ ৩টি।
    • জ়িরাবাটা ১ চা-চামচ।
    • আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ করে।
    • ধনেপাতা-কুচি ২ টেবিল-চামচ।
    • পেয়াজঁ-বেরেস্তা ১ টেবিল-চামচ।

কড়াইতে তেল গরম করে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিন। পানি দিয়ে মসলা ভালো করে কষিয়ে কোফতা মসলার সঙ্গে মিশিয়ে ঢেকে অল্প আঁচে দুই মিনিট রাখুন।

তারপর এক কাপ পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। বেশি নাড়া যাবে না। তেলের উপরে উঠলে ধনেপাতা, কাঁচামরিচ বেরেস্তা দিয়ে দুই মিনিট দমে রাখতে হবে।

পরিবেশনঃ

চুলা বন্ধ করে গরম ভাত বা পোলাওয়ের সঙ্গে পরিবেশন করতে পারেন।

    • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

রেস্টুরেন্ট স্টাইলে চাইনিজ ভেজিটেবল

2:14 am
রেস্টুরেন্ট স্টাইলে চাইনিজ ভেজিটেবল

রেস্টুরেন্ট স্টাইলে চাইনিজ ভেজিটেবল - restaurant style chinees vegetable

রেস্টুরেন্ট স্টাইলে চাইনিজ ভেজিটেবল

রেসিপিঃ মুহসিনা তাবাসসুম

উপকরণঃ

    • বরবটি
    • গাজর মাঝারি সাইজ
    • পেপে মাঝারি সাইজ ১ টা (গাজর এর মত বাঁকা করে)
    • বাঁধাকপি ৪ ভাগের এক ভাগ
    • মাশরুম
    • ক্যাপসিকাম
    • কর্ণ ফ্লাওআর ২ টেবিল চামচ ১/২ কাপ পানিতে গুলে নিতে হবে
    • চিনজায় স্বাদ অনুযায়ী
    • চিকেন বা প্রন
    • আদা ও রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ করে
    • পেঁয়াজ
    • টেস্টিং সল্ট সামান্য
    • টম্যাটো সস সামান্য
    • চিকেন স্টক বা গরম পানি পরিমান মতো

প্রনালিঃ

– পেয়াজ বাদে শব সবজি জুলিয়ান কাটে/ লম্বা ভাবে কেটে নিন । আর পেয়াজ কিউব করে কেটে নিন ।

-ক্যাপসিকাম বাদে সব সবজি আলাদা ভাবে সেদ্ধ করতে হবে। সেদ্ধ করার সময়ে একটু লবণ ও কর্ণ ফ্লাওয়ার মিক্স করে নিলে সবজির রঙ ঠিক থাকে। সবুজ রঙ আর সবুজ হবে। (যে সবজির যে রঙ সেটা আরও গাড় হবে)

-সবজি গুলো আধ সেদ্ধ করে নিন ।

-এবার একটা প্যাণে তেল নিয়ে আদা ও রসুন হালকা সোনালি না হওয়া পর্যন্ত ভাজতে হবে। হয়ে গেলে মুরগি দিয়ে ভাজতে হবে সাথে সামান্য লবন ।

-এবার ক্যাপসিকাম ও পেঁয়াজ দিয়ে আর ১-২ মিনিট নেড়ে চেড়ে সব সবজি দিয়ে ৪-৫ মিনিট ভালো করে নাড়তে হবে।

-এবার পরিমান মতো চিকেন স্টক বা গরম পানি দিয়ে ঢেকে রাখুন। পানি যখন একটু কমে যাবে বা ৫-৬ মিনিট পর ঢাকনা খুলে কর্ণ ফ্লাওআর গোলানো পানি দিয়ে দিন।

-এবার চিনি , সসও লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

টিপসঃ

  1. সবজির রঙ ঠিক রাখার জন্য আলাদা আলাদা সেদ্ধ করলে ভালো।
  2. অবশ্যই সেদ্ধ করার সময়ই কর্ণ ফ্লাওয়ার ও লবণ দেবেন। এটা সবজির রঙ ঠিক রাখে।
  3. সিদ্ধ করার সময় ঢাকনা দিয়ে সিদ্ধ করবে না ।
  4. বাহিরের চিকেন স্টক একটু কালচে কালারের হয় তাই পরিমানে অল্প ব্যাবহার করবেন তানাহলে সবজি একটু কালচে হয়ে যাবে । শব চেয়ে ভাল হয় বাসায় তৈরি স্টক ব্যাবহার করলে ।

আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

ইলেকট্রিক ওভেনে চিকেন পিজ্জা

August 25, 2016 9:48 pm
ইলেকট্রিক ওভেনে চিকেন পিজ্জা

ইলেকট্রিক ওভেনে চিকেন পিজ্জা - electric oven chicken pizza

ইলেকট্রিক ওভেনে চিকেন পিজ্জা – Electric Oven Chicken Pizza

রেসিপি ও ছবিঃ আইরিন ইসলাম

ইলেকট্রিক ওভেন ১৬০ ডিগ্রী তাপমাত্রায় প্রি হিট দিয়ে রাখুন।

পিজ্জা সস-

    • ৩ কাপ টমেটো কুচি করা।
    • একটি পেঁয়াজ কুচি করা।
    • ১টি রশুন কুচি করা।
    • এক মুঠো বেছিল পাতা।
    • ১ চা চামচ ড্রাইড অরিগানো।
    • ১ চিমটি লবন।
    • এক চিমটি চিনি।
    • এক চিমটি গোল মরিচ গুঁড়া।
    • ২ চা চামচ অলিভ অয়েল।

পরে একটি কড়াইতে সব উপকরন নিয়ে ভেজে নরম করে ব্লেন্ডার ব্লেন্দ করে নিন। রেখে দিন পরে ব্যাবহার করার জন্য।
আমি ১২ ইঞ্চির পিজ্জা প্যান নিয়েছি। আর পিজ্জা বেস টা ৩ সে.মি.।

পিজ্জার খামির করতে যা লাগবে-

    • ২ কাপ ময়দা
    • ২ চা চামচ ইস্ট ( প্যাকেট এর গায়ে নিয়মাবলি দেখে ব্যাবহার করুন, আমি একটিভ ড্রাই ইস্ট দিয়েছি, যা আমি ৩ টেবিল চামচ গরম পানি, অল্প চিনিতে মিশিয়ে ঢেকে গরম জায়গায় ১০ মিনিট এর মতো রেখে দিয়েছি, ১০ মিনিট ইস্ট এর মিশ্রন টি ফুলে উঠবে, এরপর এটি ময়দার সাথে মিশিয়ে খামির তৈরি করেছি)
    • ১ চা চামচ চিনি
    • ২ টেবিল চামচ অলিভে অইল
    • ৩/৪ কাপ কুসুম গরম পানি অথবা প্রয়োজন অনুযায়ী
    • আধা চা চামচ অথবা লবন সাধ অনুযায়ী।

যেভাবে করতে হবে-

সব শুকনো উপকরন একটি বল এ নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে। পরে ইস্ট,অলিভ অয়েল, পানি মিশিয়ে নরম খামির করে নিন।পরে কিচেন টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে গরম কোন জায়াগ্য ৩০ মিনিট রেখে দিতে হবে,খামির সাইজ এ ডাবল হয়ে যাবে।

৩০ মিনিট পর খামির নিয়ে আবার ভালো করে মথে নিন। এরপর পিজ্জা প্যা্ন এ টিস্যু দিয়ে অলিভ অয়েল মেখে নিন। খামির বেলে প্যান এ বিছিয়ে দিন।

ইলেকট্রিক ওভেনে চিকেন পিজ্জা - chicken pizza bangla recipe

পিজ্জার টপিং –

নিজের পছন্দ মতো টপিং। আমি দিয়েছি –

    • মুরগীর মাংশ ছোট ছোট টুকরা করে কাটা। ( একটি কড়াইতে অলিভ অয়েল,লবন,সয়া সস, গোল মরিচ গুঁড়া দিয়ে মাংস ভেজে নিন বাদামি রং করে)
    • কেপ্সিকাম নিজের মন মতো করে কাটা
    • চেরি টমেট আধা করে কাটা।
    • মাশরুম স্লাইস করে কাটা।
    • পেঁয়াজ গোল গোল পাতলা করে কাটুন।

সবশেষে পিজার রুটি বিছানো প্যান নিন। রুটির কিনারে চীজ দিয়ে রুটি ঘুড়িয়ে ঘুড়িয়ে মুড়িয়ে নিন ( এইটা না করলেও হবে ) পরে পিজা সস রুটির উপর মেখে দিন, পরে কিছু চীজ সস এর উপর দিয়ে দিন।

পরে একে একে সব পছন্দের টপিং দিয়ে উপরে চীজ দিয়ে ওভেন এ দিয়ে বেক করুন ৩০ মিনিট, অথবা পিজা ক্রাস্ট বাদামি রং হওয়া পর্যন্ত। হয়ে গেলে ওভেন থেকে বের করে পরিবেশন করুন।

    • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

কচুশাকের ঘন্ট রেসিপি

8:10 pm
কচুশাকের ঘন্ট রেসিপি

কচুশাকের ঘন্ট রেসিপি - kochu-saker-ghonto

কচুশাকের ঘন্ট রেসিপি – Kochu Saker Ghonto Recipe

রেসিপি ও ছবিঃ সুমি’স কিচেন

উপকরনঃ

    • কচু শাকঃ ৪ টি ডগা(১ টি ওল কচুর উপরের অংশ)
    • তেলঃ ১/৪কাপ
    • চিনা বাদাম ভাজাঃ ১/২কাপ
    • পেয়াজকুচিঃ ১/৪কাপ
    • আদা রসুন বাটাঃ ১চা চামচ করে
    • লাল মরিচ ও হলুদের গুড়োঃ ১চা চামচ করে
    • হলুদের গুড়োঃ ১চা চামচ
    • জিরা ও ধনে গুড়োঃ ১চা চামচ করে
    • গরম মশলা গুড়োঃ ১/২চা চামচ
    • কাচা মরিচঃ ৩ টি
    • এলাচঃ ২, দারচিনিঃ ২, তেজপাতাঃ ১ ও গোলমরিচঃ ৫ টি
    • চিনিঃ ১/২চা চামচ

প্রস্তুতকরনঃ

– কচুশাক ধুয়ে হলুদ ও লবন দিয়ে ফুটন্ত পানিতে ১০ মিনিট সিদ্ধ করে নিন। তারপর পানি ছেকে নিন।

– কড়াইতে তেল দিয়ে পেয়াজ, তেজপাতা ও আস্ত গরম মশলা দিন। পেয়াজ নরম হলে বাটা ও গুড়ো মশলা দিন।

– অল্প পানি দিয়ে মশলা কষিয়ে নিন। সিদ্ধ কচু দিন। আস্তে করে মিশিয়ে নিন। কাচামরিচ ও লবন দিয়ে ঢাকনা দিয়ে অল্প আচে রাখুন।

– মাখা মাখা হলে ভাজা চিনাবাদাম ও চিনি ছিটিয়ে অল্প আচে ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর চুলা বন্ধ করুন।

পরিবেশনঃ

গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।

    • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

গরুর মাংসের কালিয়া

2:42 pm
গরুর মাংসের কালিয়া

গরুর মাংসের কালিয়া - gorur mangser kaliya

গরুর মাংসের কালিয়া

গরুর মাংসের কালিয়া বেশ পছন্দের একটি খাবার, সময় সাপেক্ষ হলেও এটি রান্না করতে আমার কখনই ক্লান্তি লাগেনা। খেতে অসম্ভব মজার।

রেসিপি ও ছবিঃ ফাহা’স রান্নাঘর

উপকরন সমুহঃ

    • গরুর রানের মাংস ২ কেজি
    • পেয়াজ ফালি ২ কাপ
    • কাচামরিচ ৪ টা
    • হলুদগুড়া ২ চা চামচ
    • মরিচগুড়া ২ চা চামচ
    • ধনেগুড়া ১ চা চামচ
    • জিরে গুড়া ১ চা চামচ
    • আদাবাটা ৩ চা চামচ
    • রসুনবাটা ৩ চা চামচ
    • লবন ২ চা চামচ
    • সরষের তেল ৩ টেবল চামচ
    • তেজপাতা ২ টা
    • এলাচ ৩ টা
    • দারচিনি ১ টুকরো
    • জায়ফল ১/৪ চা চামচ
    • জয়ত্রী ১/৪ চা চামচ
    • ভিনেগার ১ টেবল চামচ
    • মেজবানি মাংসের
    • মসলা ১ টেবল চামচ
    • গোলাপ জল ১ টেবল চামচ।

গরুর মাংসের কালিয়া প্রস্তুতকরনঃ

প্রথমে কড়াইতে সরষের তেল গরম করে তাতে তেজপাতা, এলাচ, দারচিনি ভেজে মাংস দিয়ে দিতে হবে।

এবার এতে পেয়াজ ছাড়া বাকি সব উপকরন দিয়ে ঢেকে মাঝারি আচে ১ ঘন্টা রান্না করার পর তাতে পেয়াজ দিয়ে আরো ১ ঘন্টা অল্প আচে রাধতে হবে, কোন পানি দেয়া যাবেনা।

১৫/২০ মিনিট পর পর তলার মাংস উপরের দিকে তুলে দিতে হবে। মাংসের রঙ কালচে হয়ে এলেই হয়ে গেল গরুর মাংসের কালিয়া।

পরিবেশনঃ

গরম ভাত, নান বা পরটার সাথে পরিবেশন করুন।

    • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

রাজ কচুরি রেসিপি

2:38 am
রাজ কচুরি রেসিপি

রাজ কচুরি রেসিপি / Raj Kachori Recipe

রাজ কচুরি রেসিপি / Raj Kachori Recipe

রেসিপি ও ছবিঃ সুমি’স কিচেন

উপকরনঃ

মচমচে পুরি তৈরিঃ

    • আটা বাঁ ময়দাঃ ১/২কাপ
    • মিহি সুজিঃ ১কাপ
    • লবনঃ ১/২চা চামচ
    • বেকিং সোডা বা খাবার সোডাঃ ১/৪চা চামচ
    • পানিঃ ১/২ কাপ বা পরিমানমত

– পানি বাদে সব উপকরন মিশিয়ে নিন।

– অল্প অল্প করে পানি মিশিয়ে কিছুটা নরম খামির বানিয়ে নিন।খামির কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন ৩০ মিনিট।

– খামির ৬ ভাগ করে নিন।একভাগ নিয়ে পিড়িতে ময়দা ছিটিয়ে কিছুটা পাতলা রুটি বানিয়ে নিন।

– কড়াইতে তেল দিয়ে গরম করে নিন।ফুটন্ত তেলে পুরি ছেড়ে চামচ দিয়ে চেপে ধরুন।পুরি ফুলে উঠলে মাঝারি আচে বাদামি করে ভাজুন।তেল ফুটন্ত হতে হবে নয়ত পুরি ফুলবেনা। ঠান্ডা করে এয়ার টাইট জারে রাখুন।

তেতুলের চাটনি তৈরিঃ

    • তেতুলের কাথঃ ১/৪কাপ
    • ধনেপাতা বাটাঃ ১ টেবিলচামচ
    • কাচামরিচ বাটাঃ ১চা চামচ
    • টালা শুকনা মরিচ গুড়োঃ ১ টেবিলচামচ বাঁ ইচ্ছেমত
    • চিনিঃ ১/৪কাপ
    • বিট লবন পরিমানমত

– ১/৪কাপ পানি ও উপরের সব উপকরন এক সাথে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

পুর তৈরিঃ

    • আলুঃ ১কাপ(সিদ্ধ ও কিছুটা ভর্তা করা)
    • সিদ্ধ ডাবলিঃ ১কাপ
    • কাচামরিচ কুচিঃ ১ টেবিলচামচ
    • ধনেপাতা কুচিঃ ২ টেবিলচামচ

মুচমুচে নিমকি বা ফুচকাঃ ১২ টি(পুরির খামির দিয়েই কিছু নিমকি বা ফুচকা করে নিন) আলু, ডাবলি, কাচামরিচ ও ধনেপাতা কুচি মিশিয়ে নিন। নিমকি হাত দিয়ে কিছুটা ভেঙ্গে নিন।

অন্যান্যঃ

    • দইঃ ১কাপ
    • চিনিঃ ২ টেবিলচামচ
    • চাট মশলাঃ ২ টেবিলচামচ

দই এর সাথে চিনি ও চাট মশলা মিশিয়ে নিন। এখন একটি করে পুরি নিয়ে একপাশে কিছুটা ভেংগে নিন। ভেতরে পুর দিয়ে উপরে নিমকি দিন। উপরের তেতুলের ও দই চাটনি দিয়ে পরিবেশন করুন। চাইলে ঝুরিভাজা ছিটিয়ে নিন।

    • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

মাত্র ১ টি উপায়ে দূর করুন অতিরিক্ত চুল পড়া

2:16 am
মাত্র ১ টি উপায়ে দূর করুন অতিরিক্ত চুল পড়া

মাত্র ১ টি উপায়ে দূর করুন অতিরিক্ত চুল পড়া - chul pora somadhan

মাত্র ১ টি উপায়ে দূর করুন অতিরিক্ত চুল পড়া

চুলের অন্যান্য সমস্যার চাইতে বেশী সমস্যা হচ্ছে অতিরিক্ত চুল পড়া। কারণ রুক্ষ শুষ্ক চুলও মেনে নেয়া যায় কিন্তু অতিরিক্ত চুল পড়ে মাথা প্রায় খালি হয়ে যাওয়ার ব্যাপারটি কেউ মেনে নিতে পারেন না। বিশেষ করে নারীরা। কিন্তু এই নিয়ে আরও যতো দুশ্চিন্তা করবেন ততো বেশী করে চুল পড়তে থাকবে। এর চাইতে ঘরেই দারুণ একটি উপায়ে দূর করে দিন চুল পড়ার যন্ত্রণা চিরকালের জন্য।

অবাক হচ্ছেন? অবাক হলেও এটি বেশ কার্যকরী। ব্যবহার করেই দেখুন। বেশ উপকার পেয়ে যাবেন কিছুদিনের মধ্যেই।

যা যা লাগবেঃ

    • দেড় কাপ আলুর রস
    • ১ চা চামচ মধু
    • সামান্য পানি
    • ১ টি ডিমের কুসুম

ব্যবহারবিধিঃ

– পরিষ্কার চুলে এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করতে চেষ্টা করবেন। অর্থাৎ আগের দিন চুল পরিষ্কার করে নিয়ে পরের দিন ব্যবহার করতে পারেন এই হেয়ার প্যাকটি।

– একটি বাটিতে সকল উপকরণ পরিমাণ মতো নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে মসৃণ মিশ্রণ তৈরি করে ফেলুন। লক্ষ্য রাখবেন যেনো সম্পূর্ণ ভালো করে মিশে যায় সবকিছু।

– এরপর চুল একটু ভিজিয়ে নিয়ে এই প্যাকটি পুরো চুলে লাগান, বিশেষ করে মাথার ত্বকে, চুলের গোঁড়ায়। এরপর ৩০ মিনিট এভাবেই রাখুন।

– ৩০ মিনিট পর চুল খুব ভালো করে ধুয়ে নিন এবং ফ্যানের বাতাসে চুল শুকান। সপ্তাহে মাত্র ১ দিন ব্যবহার করুন। কয়েক মাসের মধ্যেই চুল পড়া একেবারেই বন্ধ হয়ে যাবে।

কার্যকারণঃ

আলুতে রয়েছে ভিটামিন এ, বি ও সি এবং ক্যালসিয়াম, সোডিয়াম, আয়রন এবং ফসফরাস যা চুলের বৃদ্ধি এবং চুলের অতিরিক্ত রুক্ষতা যার কারণে চুল পড়ে এবং ভেঙে যায় তা প্রতিরোধে সহায়তা করে থাকে। মধু এবং ডিমের কুসুম চুলের কোলাজেন টিস্যুর সুরক্ষায় কাজ করে যার ফলে চুলের অকালপক্বতা এবং ঝরে পড়া প্রতিরোধ করে।

ঝালমুড়ির মশলা তৈরি করুন ঘরেই

1:58 am
ঝালমুড়ির মশলা তৈরি করুন ঘরেই

ঝালমুড়ির মশলা তৈরি করুন ঘরেই - jhalmuri mosla recipe

ঝালমুড়ির মশলা তৈরি করুন ঘরেই

রেসিপি ও ছবিঃ মুহসিনা তাবাসসুম

উপকরন :-

    • ধনিয়া – ২ টেবিল চামচ
    • জিরা – ১ টেবিল চামচ
    • শুকনা মরিচ – ২ টি
    • কাঁচামরিচ – ২-৩ টি
    • জয়ফল – অল্প পরিমানে
    • দারুচিনি – ২ টি স্টীক
    • মৌরি + লবঙ্গ – সামান্য
    • এলাচ – ৩-৪ টি
    • পেয়াজ – ১ টি বড়
    • আদা + রসুন কুচি – ১/২ কাপের কম
    • হলুদ গুড়া – ১ চাচামচ
    • সরিষার তেল – ১/৪ কাপ
    • সয়াবিন তেল – ২-৩ টেবিল চামচ
    • টেস্টিং সল্ট – ১/২ চাচামচ
    • লবন – পরিমান মতো

প্রনালি :-

– সব মশলা পাটায় বা ব্লেন্ডারে মিহি করে পেস্ট তৈরি করে নিন ।

– প্যানে দুই রকমের তেল দিয়ে গরম করে বাটা মশলা দিয়ে দিন ।

– হলুদ , লবন ও সামান্য পানি দিয়ে ৫-৬ মিনিট নাড়াচাড়া করুন ।

– মশলা কষানো হয়ে গেলে টেস্টিং সল্ট দিয়ে আরো ২-৩ মিনিট নেড়েচেড়ে নিন ।

– তেল উপরে উঠে আসলে এবং মশলা থেকে কাঁচা ভাব চলে গেলেই নামিয়ে নিন ।

– ঠাণ্ডা হলে কাঁচের বয়ামে ভরে নরমাল ফ্রিজে রাখুন ।

টিপস :-

* বেশি দিন ভাল রাখতে চাইলে সাথে সামান্য সিরাকা দিন ।

পরিবেশন :-

ঝালমুড়ি অথবা যে কোন ঝাল খাবারের সাথে পরিবেশন করা যাবে ।

    • আরো সুন্দর, সুস্বাদু রেসিপি ও টিপস পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন।